বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ০৪:৪৯ অপরাহ্ন

সাংবাদিক পরিচয়কারী দুই প্রতারক গ্রেপ্তার

জার্নালআই২৪ ডেস্ক
  • হালনাগাদ সময় : মঙ্গলবার, ১ জুন, ২০২১
  • ৬৭ বার

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের মাদানীনগর এলাকা থেকে বহুমুখী প্রতারণার মূলহোতাসহ দুই প্রতারককে গ্রেফতার করে করেছে র‌্যাব-১১। প্রতারক প্রদীপ চন্দ্র বর্মণ (৩৫) ও আনিসুর রহমান (৪৫) সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে মানুষের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিত।

তাদেরকে সোমবার (৩১ মে) বিকেলে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ১টি প্রাইভেটকার, ২টি মোবাইল সেট, ব্যানার, জীবনবৃত্তান্ত ফরম, সাংবাদিক আইডিকার্ড, তালাশ নিউজ-৭৯ টিভি কার্ড উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার (১ জুন) এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‌্যাব-১১ সিনি. এএসপি (সিপিএসসি আদমজীনগর) প্রণব কুমার।

তিনি জানান, বহুমুখী প্রতারক চক্রের মূলহোতা প্রদীপ চন্দ্র বর্মণ ওয়াকিটকি সেট, মনোগ্রাম সম্বলিত জ্যাকেট ও হ্যান্ডকাফ দেখিয়ে নিজেকে একাধারে ‘সমাজের জন্য আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন প্রয়োগকারী সংস্থা’ তালাশ নিউজ টিভি-৭৯ ও দৈনিক সত্যের সংগ্রাম পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, প্রকাশক ও সম্পাদক হিসেবে পরিচয় দিয়ে থাকে।

সে বিভিন্ন সময়ে ভুয়া আইডি কার্ড তৈরি, ট্রাফিক পুলিশ ও যুব ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ে চাকরির আশ্বাস দিয়ে এবং তার কথিত টিভি চ্যানেল ও ‘সমাজের জন্য আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন প্রয়োগকারী সংস্থার’ সদস্য পদে ও নিউজ চ্যানেলের জেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে সরল বিশ্বাসী মানুষের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিত। পরবর্তীতে তার কাছে কেউ টাকা ফেরত চাইলে অত্যাচারের হুমকি দিত বলে ভুক্তভুগিদের কাছ থেকে জানা যায়।

তিনি আরও জানান, চাঞ্চল্যকর তথ্য হলো প্রদীপ চন্দ্র নিজে এক সময় জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী ছিল। ২০১৫ সালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর স্বাক্ষর জাল করার অপরাধে তার বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা হয়। এছাড়াও অবৈধভাবে ওয়াকিটকি সেট ব্যবহার ও বিতরণ করার অপরাধে ২০১৯ সালে টাঙ্গাইলের কালিহাতি থানায় তার বিরুদ্ধে একটি মামলা রয়েছে।

প্রতারক প্রদীপের প্রধান সহযোগী আনিসুর রহমান মূলত একজন রিকশাচালক বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে। সে নতুন সদস্য সংগ্রহের কাজে বিভিন্নভাবে তাকে সহায়তা করে আসছিল বলে জানা যায়।

অভিযোগ প্রাপ্তির পর সরেজমিনে বিষয়টির সত্যতা যাচায়ের পর র‌্যাব-১১ তথ্য প্রযুক্তি ও গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এই বহুমুখী প্রতারক চক্রের মূলহোতা ও তার সহযোগী আনিসুর রহমানকে হাতে-নাতে গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাব-১১ এমন প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে এবং এই ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান সিনি. এএসপি প্রণব কুমার।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2019 journaleye24
Theme Download From journaleye24.com
themesba-lates1749691102